সাজে অপরূপা শ্যামলবরণ মেয়ে

বাংলাদেশের বেশিরভাগ মেয়ের গায়ের রঙ-ই শ্যামলাবরণ। নরম ভেজা মাটির মতো শ্যামলাবরণ মেয়েরা তাদের সাজ পোশাকে সঠিক রঙটি বেছে নিলেই হয়ে উঠতে পারেন অপরূপা। অবশ্য এই কথাটি শুধু শ্যামলা নয় সবার জন্যই প্রযোজ্য।’ এমনটাই বলেন ফ্যাশন হাউজ ‘দেশাল ’-এর স্বত্বাধিকার ও ডিজাইনার ইশরাত জাহান।

সাধারণ কামিজ হোক কিংবা শাড়ি, গায়ের বরন শ্যামলা হলে তাই বেছে নিতে পারেন ম্যাজেন্টা, কমলা, কমলাটে হলুদ, গাঢ় লাল, মেরুন, নীলচে বেগুনি, সবুজ জাতীয় রঙের পোশাকগুলো। গাঢ় রঙগুলোর হালকা শেডের যে-কোনো পোশাকে ভালো লাগবে। শরতের এই আবহওয়াতে শ্যামলা মেয়েদের শাড়িতেই বেশি মানায়।

কে ক্র্যাফট-এর ডিজাইনার সায়লা বলেন, ‘ত্বকের রঙ ফর্সা কিংবা শ্যামলা যাই হোক না কেন, সেটা বড় কথা নয়। একজন শ্যামলা মেয়েকে সব ধরনের পোশাকেই মানিয়ে যায়, যদি তারা সেটি আত্মবিশ্বাস নিয়ে পড়তে পারেন।’ হালকা গোলাপি, কালো, নেভী ব্লু রঙগুলো এড়িয়ে চলতে বলেন তিনি। কারণ এই ধরনের রঙে ত্বক বেশ কালচে দেখায়। পোশাকে হালকা কিংবা ভারি যে-কোনো ধরনের কাজই থাকুক না কেন রঙ মানিয়ে গেলে দেখতে ভালো লাগবে।
অলংকার নির্বাচন
সোনার গয়না কার না পছন্দ, কিন্তু বর্তমান সময়ে নিত্যদিন ব্যবহারের জন্য সোনার তৈরি গয়না পড়তে দেখা যায় খুব কম। শ্যামলা মেয়েদের উজ্জ্বল সোনালি বাঁ রূপালি গয়নার চেয়ে অক্সিডাইজড অলংকারে বেশি সুন্দর দেখায়। তামাটে রঙের হালকা গয়নাও মানিয়ে যাবে বেশ সুন্দর করে। চকচকে রূপোর গয়না এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেন কে ক্র্যাফট ডিজাইনার শায়লা নূর।

‘শ্যামলা মেয়েদের গয়নার প্রসঙ্গ উঠলে আমার সবসময়ই মনে হয় কাচের অথবা পুঁতির গয়নাই ভালো। তামার গয়নাও ভালো লাগবে আর ভালো লাগবে কাঠ ও মাটির গয়না। আজকাল অনেকেই রঙিন কাপড় দিয়ে সুন্দর সুন্দর গয়না বানান, সেগুলোও মানাবে ভালো।’ বলেন ইশরাত জাহান।

ত্বকের সুস্থতা
ত্বক যেমনই হক না কেন তার সঠিক যত্ন না নিলে কোনোভাবেই তার লাবণ্য ধরে রাখতে পারবে না। ব্রর্ণের দাগ কিংবা মুখে অযাচিত লোম মুখের সৌন্দর্য নষ্ট করে দেয়। তাই ত্বক সবসময় পরিষ্কার ও ময়েশ্চারাইড রাখতে হবে। বেশি করে পানি পান করার পাশাপাশি ফলমূল ও সবুজ শাকসবজি খেতে হবে। রোদে গেলে হালকা মেকআপের পাশাপাশি সান ব্লক অবশ্যই ব্যবহার করতে হবে। খুব চড়া মেকআপ না করাই ভালো।
চোখ ও ঠোঁটের সাজ
ইশরাত জাহানের মতে, ঘন কাজল চোখের উপরের পাতা ও চোখের নিচের কোল জুড়ে থাকতে পারে। আইশ্যাডোর ক্ষেত্রে শ্যামলা মেয়েদের স্বাধীনতা বেশি। মেটালিক ও উজ্জ্বল রঙগুলো বেছে নিতে পারেন। গোল্ড, ব্রোঞ্জ ও কপার আইশ্যাডো আপনার লুকে বেশ জমকালো ভাব এনে দেবে। কফি ব্রাউন, লালের নানা শেড, ম্যাজেন্টা, মেরুন, বাদামি রঙের লিপস্টিক ফুটে ওঠে শ্যামলা ত্বকে। আজকাল ফ্যাশানের চলে পরিবর্তন আসায় কমলা ও বেগুনি রঙের লিপস্টিক পরতেও দেখা যায়।

নখ ও চুলের সাজ
বাজারে বাহারি রঙের নেইলপলিশ পেয়ে যাবেন অনেক সহজেই। নেইলপলিশের জন্য বেছে নিন গাঢ় কোনো রঙ। চাইলে পোশাকের রঙের সাথে মানিয়ে পরে নিন নেইলপলিশ। চুল সাজানো প্রসঙ্গে ইশরাত জাহান বলেন, চুলের বেলায় এলোখোঁপা বা খোলাচুল অথবা ঢিলেঢালা বেণি করা যেতে পারে। বেণির প্রান্তে পুরানো স্টাইলে ফিতা বাঁধলে ভালো লাগবে। চুলে একথোকা কাঁচা ফুল অথবা একথোকা পত্রমঞ্জরি সাজিয়ে নিতে পারেন।

– রাজিয়া সুলতানা
ছবিঃ দেশাল

By | 2018-01-14T07:10:06+00:00 January 9th, 2018|কবিতা|1 Comment

About the Author:

One Comment

  1. A WordPress Commenter January 9, 2018 at 12:10 pm - Reply

    Hi, this is a comment.
    To get started with moderating, editing, and deleting comments, please visit the Comments screen in the dashboard.
    Commenter avatars come from Gravatar.

Leave A Comment

error: Content is protected !!