আমার মা – এবিএম সোহেল রশিদ

Home/কবিতা/আমার মা – এবিএম সোহেল রশিদ

আমার মা – এবিএম সোহেল রশিদ

মায়ের মতো, আর নিজের মা ; এক নয়- কখনও নয়
মায়ের অনুরূপ আদর-স্নেহ, সোহাগ আর মমতা সে-তো
বারোয়ারি মেলা থেকে সস্তায় কেনা লোভনীয় হাওয়া মিঠাই
পথের ধুলো পথেই ওড়াই ,অহংবোধের চোরাবালিতে ডুবে মরি
এ যেন শূন্য আকাশে ফেরারি ঘুড়ি; আগলে রাখা কাকতাড়ুয়া
সৌরমণ্ডলে তীরবিদ্ধ প্রশ্নবোধক চিহ্ন , মহাজাগতিক প্রলয়

.
পৃথিবীর পথে মায়াবী আঁচল বিছিয়েছেন, সেই-তো আমার মা
সব ক্ষমা চোখসমুদ্রে রেখে, বিলায় শর্তহীন শান্তির ওম
তার চুম, ভুলায় আমার দুঃখ, আমার ভ্রান্তি বিলাস
আরশিতে দেখায় জন্ম ইতিহাস, এর চেয়ে বেশী চাওয়া নয়
মায়ের বিকল্প! সে-তো আষাঢ়ে গল্প, আরেকটি নাগাসাকি-হিরোশিমা
ভালোবাসার ঐশ্বর্য যার দু’হাতে, তিনি আমায় গর্ভে ধারণকারী মা
.
সাজানো নগর ,সাজানো বাড়ির সারি, চোখ ধাঁধানো গাড়ি
স্ফটিক গ্লাসে গোলাপি পানি, অনৈতিক সুখ, ভরাবে কি বুক
মেহেদির সূত্রে আরোপিত মা, আদরে বন্যায় বিলায় উষ্মা
ভুলাতে চায় মায়ের কোল, ভুলাতে চায় আদুরে বোল
ভুলাতে চায় শিকড়ের হাতছানি। এ সব এখন জীবনের গ্লানি
.
নারকীয় বাতাসের গভীরে, সাদাকালো দৃশ্যে, বারবার ফিরে আসে
ভাতের লুকমা, মাছের মুড়ো, মুরগীর রান,দুধ পান
সুঁই-সুতোয় ফুলতোলা কাপড় , শীতের সকালে জড়ানো চাঁদর
বুক পকেটে কয়েকটি খুচরো টাকা, মমতার চুমুতে মাখা
কি করে ভুলি, কি করে লুকাই রোদেলা সেই মধুর দিনগুলি
একটুকরো মেঘ চোখের কোনে, একটি দীর্ঘশ্বাস জন্মে সংগোপনে
.
শেষপর্যন্ত সত্যবন্দরে আত্মসমর্পণ; মা-ই একমাত্র আপন
পৃথিবীর সেরা সুন্দরতমা চাঁদ ,নদী , ফুল তারই উপমা
একদিন সব ধুসর হয়ে যাবে; থেমে যাবে আনন্দ সানাই
আমি কষ্ট ওড়াই, হারাবো প্রাণপাখি দূরাকাশের ওপারে
এ সুন্দর বসুন্ধরার সিংহদ্বারে একদিন প্রবেশাধিকার নিষিদ্ধ হবে
সেদিনও দাঁড়াবে আঁচলভর্তি আশীর্বাদ নিয়ে স্বর্গদ্বারে, আমার মা

By | 2018-05-16T19:07:04+00:00 May 16th, 2018|কবিতা|0 Comments

About the Author:

Leave A Comment

error: Content is protected !!